ঢাকা, বাংলাদেশ | বুধবার | ২৮ অক্টবর | ২০২০ | ৬:২৫ pm

×

জীবনযাপন

জুন ১০, ২০২০, ৪:১০ am

করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে পুলিশের মনোবল বাড়াতে শারীরিক কসরত

শেরপুর প্রতিনিধি - শাহরিয়ার শাকির
শারীরিক কসরত এর ছবি

ছবি - শারীরিক কসরত এর ছবি

পাখির কলকাকলিতে ভোরে পুলিশের হাঁকডাক আর হইচই শুনে ঘুম ভেঙে যায় প্রতিবেশীদের। অনেকেই ছুটে যান পুলিশ লাইন এবং থানার আশপাশে। না, অন্যকিছু নয়। দলবেঁধে শারীরিক কসরত করছেন সাদা পোশাকে একদল পুলিশ। ভোরে এমনই ব্যতিক্রম চিত্র দেখা যাচ্ছে শেরপুরের পুলিশ লাইন ও থানা চত্বরে। করোনা পরিস্থিতিতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও শারীরিক সক্ষমতা ধরে রাখতে নতুন নিয়মে ফিরেছে বাংলাদেশ পুলিশ।

এই জন্য এখন থেকে প্রতিদিন একঘন্টা শারীরিক কসরত করবেন পুলিশের প্রতিটি সদস্য। এমন নিয়ম চালু হয়েছে শেরপুরে। এই জেলার থানা, জেলা পুলিশ লাইনস্, বেশ কয়েকটি ফাঁড়ি এবং তদন্ত কেন্দ্র মিলিয়ে কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল ও কর্মকর্তা ঘণ্টাব্যাপী এই শারীরিক কসরত শুরু করেছেন। এই বিষয় শেরপুর থানার ওসি জানান, পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম মহোদয় এর নির্দেশে আমরা উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি।

ভোর সাড়ে ৬টা থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী টানা এই শারীরিক কসরত শুরু করেছি। শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম জানান, এতে প্রতিটি পুলিশ সদস্য যেমন তাদের শারীরিক সক্ষমতা ধরে রাখতে পারবে। একই সঙ্গে তাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বেড়ে যাবে।

এখানে কর্মরত শেরপুরের পুলিশ সদস্যরা অংশ নিয়েছে বলে জানান তিনি। পুলিশ সুপার আরো জানান, মূলত করোনা পরিস্থিতিতে পুলিশের জন্য এটি খুবই কার্যকরী পদক্ষেপ। এমন অবস্থায় এখন থেকে জেলায় কর্মরত পুলিশ সদস্যরা ঘণ্টাব্যাপী শারীরিক কসরতে অংশ নেবেন বলেও জানান, পুলিশ সুপার। প্রসঙ্গত, দেশের করোনা পরিস্থিতিতে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে অন্যদের মতো পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা নিরলসভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। এর মধ্যে বিপুলসংখ্যক পুলিশ করোনায় আক্রান্ত এবং বেশ কয়েকজন প্রাণ হারিয়েছেন।